অন্ডকোষে হার্নিয়া - অন্ডকোষে হার্নিয়া অপারেশন

অন্ডকোষে হার্নিয়া হলে যত দ্রুত সম্ভব এর চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। কেননা, অন্ডকোষে হার্নিয়া মারাত্মক শারীরিক ক্ষতির কারণ হতে পারে। অনেক সময় ওষুধের মাধ্যমেই অন্ডকোষে হার্নিয়া নিরাময় করা সম্ভব হয়। যদি ঔষধের মাধ্যমে তা না সারে, সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে অন্ডকোষে হার্নিয়া অপারেশন করাতে হবে।

পেজ সূচিপত্র: অন্ডকোষে হার্নিয়া - অন্ডকোষে হার্নিয়া অপারেশন

অন্ডকোষে হার্নিয়া: কারণ, লক্ষণ ও প্রতিকার

অন্ডকোষে হার্নিয়া হওয়ার অনেক কারণ রয়েছে। আপনি যদি অন্ডকোষে হার্নিয়া প্রতিরোধ করতে চান তাহলে, নিচে উল্লেখিত অন্ডকোষে হার্নিয়া হওয়ার কারণ সমূহ থেকে বিরত থাকবেন। আপনি যদি, নিম্ন বর্ণিত তথ্যগুলো যথাযথভাবে অনুসরণ করেন তাহলে, আশা করা যায় আপনার অন্ডকোষে হার্নিয়া হবে না। 

প্রতিরোধ প্রতিকারের চেয়ে উত্তম। হওয়ার পরে তার চিকিৎসা না করে রোগ যেন না হয় সেই ব্যবস্থা গ্রহণ করা বুদ্ধিমানের কাজ। আশা করি নিচে উল্লেখিত তথ্যগুলো আপনার উপকারে আসবে। তো আসুন দেখে নেয়া যাক, অন্ডকোষে হার্নিয়ার কারণ, লক্ষণ ও প্রতিকার সম্পর্কে বিস্তারিত।আর্টিকেলটির শেষাংশে, অন্ডকোষের কাজ কি? সে সম্পর্কেও আলোচনা করা হবে। 

অন্ডকোষে হার্নিয়ার কারণ সমূহ: বিভিন্ন কারণবশত অন্ডকোষে হার্নিয়া হয়ে থাকে। অনেকেই না জানার কারণে বারবার সেই কাজগুলো করে থাকেন যে কাজগুলো করলে, অন্ডকোষে হার্নিয়া হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই আপনি যদি, অন্ডকোষে হার্নিয়ার কারণ সমূহ জেনে রাখেন তাহলে, সেই কাজগুলো থেকে থেকে সাবধান হতে পারবেন। 
  • তলপেটে অত্যাধিক চাপ প্রয়োগ করা
  • মলত্যাগের সময় বা প্রস্রাব করার সময় অত্যাধিক চাপ প্রয়োগ করা
  • কঠোর পরিশ্রম করা
  • গর্ভবতী হওয়া
  • দীর্ঘস্থায়ী হাঁচি কিংবা কাশি থাকা
  • জন্মের সময়ে কোন ধরনের ত্রুটি হওয়া
  • গর্ভবতী অবস্থায় সন্তান বহন করা
  • দিনের বেশিরভাগ সময় দাঁড়িয়ে থাকা
  • প্রস্রাব আটকে রাখা
অন্ডকোষে হার্নিয়ার লক্ষণ সমূহ: নিচে অন্ডকোষে হার্নিয়া হওয়ার লক্ষণ সমূহ তুলে ধরা হবে। আপনি যদি কখনো নিজের মাঝে এই লক্ষণগুলো দেখতে পান তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করবেন কেননা এই লক্ষণ গুলো হলে অন্ডকোষে হার্নিয়া হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। অনেকেই চক্ষু লজ্জার কারণে বা সামাজিকতার কারণে এই ধরনের রোগ হলে ডাক্তারের কাছে যেতে লজ্জা বোধ করেন বা কারো কাছে প্রকাশ করতে ভয় পান। 

আপনাকে একটি বিষয়ে মনে রাখতে হবে, রোগের কারণে যদি কোন ক্ষতি হয়ে যায় তা কিন্তু আপনারই হবে। তাই  চক্ষু লজ্জার ভয়ে বা সামাজিকতার কারণে কারণে কখনোই উচিত হবে না আপনার নিজের ক্ষতি ডেকে আনা। সুতরাং এই ধরনের সমস্যা দেখা দিলে, অবশ্যই আপনাকে ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে এবং উপযুক্ত চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। 
  • অন্ডকোষের থলি ফুলে যাওয়া
  • কুঁচকিতে ব্যথা, বিশেষ করে যখন চাপ দেওয়া হয় বা কাশির সময়
  • পায়ের তলায় পোড়া অনুভূতি
  • নাভির আশপাশ ফুলে যাওয়া
  • পূর্বে অপারেশন করা থাকলে সেই জায়গা ভুলে যাওয়া এবং ব্যথা করা
অন্ডকোষে হার্নিয়ার প্রতিকার: আপনি যদি অন্ডকোষে হার্নিয়া রোগ থেকে নিজেকে নিরাপদে রাখতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে নিম্ন বর্ণিত, তথ্যসমূহ যথাযথভাবে অনুসরণ করতে হবে। নিম্ন বর্ণিত তথ্য গুলো যথাযথভাবে অনুসরণ করলে খুব সহজেই আপনি অন্ডকোষে হার্নিয়া রোগ থেকে  নিজেকে নিরাপদ রাখতে পারবেন। 
তাই যদি আপনি নিজেকে অন্ডকোষে হার্নিয়া রোগ থেকে নিরাপদ রাখতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে নিচে উল্লেখিত তথ্য গুলো অনুসরণ করতে হবে। অন্ডকোষে হার্নিয়ার প্রতিকার সমুহ নিচে তুলে ধরা হলো। 
  • ওজন নিয়ন্ত্রণ করা
  • হাই ফাইবার খাবার গ্রহণ করা
  • ভারী জিনিস উত্তোলন না করা
  • মদ্যপান পরিহার করা
  • ধূমপান পরিহার করা 

অন্ডকোষে হার্নিয়া অপারেশন

অন্ডকোষে হার্নিয়া অপারেশন এর প্রয়োজন দেখা দিলে, আপনাকে হাসপাতাল কিংবা ক্লিনিকে যোগাযোগ করতে হবে। এবং অন্ডকোষে হার্নিয়া অপারেশন করার পূর্বেই এর খরচ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করে নিতে হবে। তা না হলে অন্ডকোষে হার্নিয়া অপারেশন করার পরে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কিংবা ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ আপনার কাছ থেকে বড় অংকের টাকা হাতিয়ে নিতে পারে। 
চিকিৎসার মান ও হাসপাতালের অবস্থানের কারণে, অন্ডকোষে হার্নিয়া অপারেশন এর খরচ ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে। তাই অন্ডকোষে হার্নিয়া অপারেশন খরচ কত তা নির্দিষ্ট করে বলা খুবই কঠিন। তবে সাধারণত হাসপাতাল ভেদে অন্ডকোষে হার্নিয়া অপারেশন করার জন্য ১০০০০ টাকা থেকে ৫০০০০ টাকা লাগতে পারে। অন্ডকোষের কাজ কি?, অন্ডকোষ হার্নিয়া ছবি এবং সুস্থ অন্ডকোষের ছবি নিচে তুলে ধরা হবে।

অন্ডকোষ হার্নিয়া ছবি

অন্ডকোষ হার্নিয়া ছবি নিচে তুলে ধরা হবে। নিম্ন বর্ণিত অন্ডকোষ হার্নিয়া ছবি দেখে আপনি খুব সহজেই বুঝতে পারবেন যে, অন্ডকোষে হার্নিয়া হলে তা কেমন দেখা যায়? তাই আপনার অন্ডকোষে হার্নিয়া হয়েছে কিনা তা জানার জন্য নিম্ন বর্ণিত অন্ডকোষ হার্নিয়া ছবি দেখে নিতে পারেন। অন্ডকোষ হার্নিয়া ছবি নিম্নরুপ। 
source: metedolapci.com
আশা করি উপরে উল্লেখিত, অন্ডকোষ হার্নিয়া ছবি দেখে আপনি নিশ্চয়ই নির্ণয় করতে পেরেছেন যে, আপনার অন্ডকোষ হার্নিয়া হয়েছে কিনা। যাই হোক নিচে অন্ডকোষের কাজ কি? সেই প্রশ্নের সঠিক উত্তর তুলে ধরা হবে এবং সুস্থ অন্ডকোষের ছবি উল্লেখ করা হবে। 

অন্ডকোষের কাজ কি

আপনি যদি পুরুষ হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার অন্ডকোষ রয়েছে। কখনো কি ভেবে দেখেছেন যে, অন্ডকোষের কাজ কি? মানব দেহে যতগুলো অঙ্গ প্রত্যঙ্গ রয়েছে, তার সবগুলোই কোনো না কোনো কাজে ব্যবহারিত হয়। ঠিক তেমনি ভাবে অন্ডকোষেরও নির্দিষ্ট কাজ রয়েছে। অন্ডকোষের কাজ কি? এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর নিচে তুলে ধরা হবে। তো আসুন দেখে নেয়া যাক, অন্ডকোষের কাজ কি? 

অন্ডকোষের কাজ হলো শুক্রাণু তৈরি করা। একজন সুস্থ পুরুষের দুইটি অন্ডকোষ থাকে। যা শুক্রাণু তৈরি করে। তবে সুস্থ সবল একটি অন্ডকোষই পর্যাপ্ত পরিমাণে শুক্রাণু তৈরি করার জন্য যথেষ্ট। তাই কোন কারণে যদি একটি অন্ডকোষে সমস্যা দেখা দেয় তাহলে দুশ্চিন্তা করার কোনো কারণ নেই। ডাক্তারের পরামর্শক্রমে আপনি সমস্যাযুক্ত অন্ডকোষ অপারেশনের মাধ্যমে অপসারণ করতে পারেন। 
আপনি যদি সমস্যাযুক্ত অন্ডকোষ অপারেশন না করেন সেক্ষেত্রে, সুস্থ অন্ডকোষও আক্রান্ত হতে পারে। তাই অবশ্যই আপনাকে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী সমস্যাযুক্ত অন্ডকোষ অপসারণ করতে হবে। যাই হোক, অন্ডকোষের কাজ কি? আশা করি তা জানতে পেরেছেন। ইতোমধ্যেই উপরে, অন্ডকোষ হার্নিয়া ছবি তুলে ধরা হয়েছে। নিচে সুস্থ অন্ডকোষের ছবি উল্লেখ করা হবে। 

অন্ডকোষের ছবি - সুস্থ অন্ডকোষের ছবি

আপনি যদি সুস্থ অন্ডকোষের ছবি দেখে নেন তাহলে বুঝতে পারবেন যে আপনার অন্ডকোষ সুস্থ রয়েছে কিনা। যদি নিম্ন বর্ণিত, সুস্থ অন্ডকোষের ছবির সাথে আপনার অন্ডকোষের মিল থাকে তাহলে ধরে নিতে পারেন যে, আপনার অন্ডকোষ সুস্থ রয়েছে। নিচে সুস্থ অন্ডকোষের ছবি উল্লেখ করা হলো।আসুন দেখে নেয়া যাক, সুস্থ অন্ডকোষের ছবি।
source: rajeevclinic.com
অন্ডকোষ হার্নিয়া ছবি, সুস্থ অন্ডকোষের ছবি এবং অন্ডকোষের কাজ কি? সেই বিষয়ে সম্পর্কে ইতোমধ্যেই উপরে বিস্তারিত আলোচনা তুলে ধরা হয়েছে। তাই আপনি যদি প্রথম থেকে পুরো আর্টিকেলটি পড়ে থাকেন তাহলে নিশ্চয়ই, অন্ডকোষে হার্নিয়ার কারণ, লক্ষণ ও প্রতিকার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পেরেছেন। কেননা উপরে অন্ডকোষে হার্নিয়া রোগ সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ ও তথ্যবহুল এই আর্টিকেলটি যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে সকলের সাথে শেয়ার করবেন। ১৬৪১৩

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url