রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন

আপনারা কি রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন এবং মহানবী সাঃ এর মেয়েদের নাম ও নবীজির ছেলের নাম কি সে সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে আমাদের আজকের এই পোস্টটি আপনাদের জন্য। আজকে আমরা আলোচনা করব রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন, রাসুল সাঃ এর স্ত্রীদের নাম এবং হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর বংশ তালিকা বা হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর বংশধর সম্পর্কে।
তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নেই, রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন এবং হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর পুরো নাম সম্পর্কে।

সূচিপত্রঃ রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন

রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন

রাসূল সাঃ এর সর্বমোট চার কন্যা ও তিন পুত্র ছিলেন। ইব্রাহিম ছাড়া বাকি ছয় সন্তানের সবগুলোই ছিল খাদিজা রাদিয়াল্লাহু তা'আলা আনহু এর গর্ভজাত। রাসূল সাঃ তিনি বেঁচে থাকা পর্যন্ত দ্বিতীয় কোন বিবাহ করেননি। মোহাম্মদ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সাথে বিয়ের সময় খাদিজা রাদিয়াল্লাহু তা'আলা আনহু এর আগের দুইটা স্বামীর কয়েকজন জীবিত সন্তানের মা ছিল খাদিজা রাঃ। পূর্বস্বামী ও তার গর্ভজাতের সন্তানরা ইসলাম ধর্ম কবুল করেছিলেন এবং সাহাবী ছিলেন সবাই।

খাদিজা রাঃ এর গর্ভে কাসেম ছিলেন রাসূল সাঃ এর প্রথম সন্তান। তার নামেই আবুল কাশেম ছিল রাসুলুল্লাহ সাঃ এর উপনাম। এরপর কন্যা জয়নাব, পুত্র আব্দুল্লাহ, তাইয়েব ও তাহের যার লকব ছিল। কেননা তিনি জন্মগ্রহণ করেছিলেন নবুয়ত লাভের পর। তারপরে রুকাইয়া, কুলসুম এবং ফাতেমা। সন্তানদের মধ্যে বড় ছিলেন কাশেম। যিনি মারা যান মাত্র ১৭ মাস বয়সে। নবুওয়াত লাভের পর আব্দুল্লাহ জন্মগ্রহণের কিছুদিনের মধ্যেই মারা যাওয়াই কুরাইশ নেতা আস বিন ওয়ায়েল প্রমুখ রাসূলুল্লাহ সাঃ কে আবতার অর্থাৎ নির্বংশ বলে অভিহিত করেছিলেন।

আরো পড়ুনঃ সকালে কাঁচা বাদাম খাওয়ার উপকারিতা

কেননা তখনকার যুগে কারো পুত্র সন্তান মারা গেলে এবং পরবর্তীতে পুত্র সন্তান হতে দেরি হলে আরবরা সেই ব্যক্তিকে বলতো আবতার। অতঃপর চারটা কন্যার মধ্যে কে সবচাইতে বড় এবং কে সবচাইতে ছোট এ নিয়ে ও মতভেদ রয়েছে। তবে প্রসিদ্ধ মত অনুসারে, জয়নব ছিলেন সবচাইতে বড় এবং ফাতেমা ছিলেন সবচাইতে ছোট। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের জীবদ্দশায় মৃত্যুবরণ করেছিলেন মোট সাত সন্তানের মধ্যে ছয় জনই। তাদের মধ্যে শৈশবে মারা যান পুত্ররা। কন্যারা সবগুলোই বিবাহিত হয় এবং হিজরত করেছিলেন।

কিন্তু ফাতেমা রাঃ ব্যতিত বাকি তিন কন্যা মৃত্যুবরণ করেছিলেন রাসূল সাঃ এর জীবন দশায়। তার মৃত্যুর ছয় মাস পরে মারা যান ফাতেমা রাদিয়াল্লাহু তা'আলা আনহু। ইব্রাহিম ছিলেন রাসুল সাঃ এর সর্বশেষ পুত্র সন্তান। তিনি মিশরীয় দাসী মারিয়া কিবতিয়ার গর্ভজাত ছিলেন। যিনি জন্মগ্রহণ করেন মদিনায় এবং মাত্র ১৮ মাস বয়সে দুধ ছাড়ার আগেই দশম হিজরির ২৯ শাওয়াল মোতাবেক ৬৩২ খ্রিস্টাব্দে ২৭ কিংবা ৩০ জানুয়ারি সূর্যগ্রহণের দিন সোমবার ইন্তেকাল করেন মদিনায়।(বুখারী, হাদিসঃ ১০৬০; মুসলিম, হাদিসঃ ৯০৬; রাহমাতুল্লিল আলামিনঃ ২/৯৮)।

মহানবী সাঃ এর মেয়েদের নাম | নবীজির ছেলের নাম কি

মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর মেয়েদের নাম এবং ছেলেদের নাম গুলো অর্থসহ নিচে আলোচনা করা হলো-

  • কাসিম অর্থ বন্টনকারী
  • তাহির অর্থ পবিত্র বিশুদ্ধ
  • ইব্রাহিম অর্থ পিতাদের পিতা
  • জয়নাব অর্থ একটি সুগন্ধি ফুল
  • রুকাইয়াহ অর্থ উন্নতি শিলা
  • উম্মে কুলসুম অর্থ স্বাস্থ্যবানের মা
  • ফাতিমাহ অর্থ দুধ ছাড়ানো শিশুর মা

রাসুল সাঃ এর স্ত্রীদের নাম

প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ ছিলেন নবীদের সর্দার। তার উপরে নাযিলকৃত সর্বশেষ গ্রন্থ হচ্ছে আল কুরআন। সেই গ্রন্থ আল কুরআনুল কারীমে মহানবী সাঃ এর স্ত্রীদের আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন বিশেষ মর্যাদা ও সম্মান দান করেছেন। মুমিনদের মা বলে সম্বোধক করা হয়েছে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর স্ত্রীদের। আল্লাহ পাক রাব্বুল আলামিন মহাগ্রন্থ আল-কুরআনে বলেন, ' নবী মুমিনদের নিকট তাদের নিজেদের অপেক্ষা অধিকতর ঘনিষ্ঠ এবং তাদের (বিশ্বাসী গণদের) মাতা তার স্ত্রী'। (সূরা আল আযহাব - ৬)। রাসুল সাঃ এর স্ত্রীরা সাধারণ নারী ছিল না।

আরো পড়ুনঃ দেওয়ানী মামলা করার নিয়ম - দেওয়ানী মামলা কত প্রকার

তাই তাদেরকে উদ্দেশ্য করে মহান আল্লাহ তা'আলা বলেন, ' হে নবী পত্নিগণ! অন্য নারীদের মতো তোমরা নও'।(সূরা আল-আযহাব- ৩২)। বর্তমানে অনেক মুসলিম নারী গণ বিয়ের পর তাদের নামের পাশে স্বামীর নাম যোগ করে পরিচয় বহন করে থাকে। অপরদিকে মহানবী সাঃ এর পবিত্র সহধর্মিনীগন স্ত্রী হবার সৌভাগ্য লাভ করার পরেও তাদের নামের শেষে রাসূল সাঃ এর নাম যোগ করেননি। বরং তারা তাদের নামের শেষে পিতার নাম যোগ করে পরিচয় বহন করতেন। আর আল কুরআনের প্রকৃত শিক্ষা হচ্ছে নামের শেষে পিতার নাম যোগ করে পরিচয় দেওয়া। সে ক্ষেত্রে রাসূল সাঃ এর স্ত্রীরা সে শিক্ষা অনুসরণ করতেন। রাসূল সাঃ এর স্ত্রীদের নাম গুলো হল-

  • খাদিজা।
  • সাওদাহ।
  • আয়িশাহ।
  • হাফসাহ।
  • জয়নব।
  • জুওয়াইবিয়া।
  • মাইমূনাহ।
  • সাফিয়া।
  • মারিয়া।
  • রায়হানা।
  • উম্মে সালমাহ।
  • উম্মে হাবীবাহ।

হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর পুরো নাম

আজকের পোস্টে আমরা রাসূল সাঃ এর স্ত্রী সন্তান সহ বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এখন হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর পুরো নাম সম্পর্কে জানব। মুহাম্মদ নামের অর্থ হচ্ছে প্রশংসনীয়। এই শব্দটা পবিত্র কুরআনে এসেছে চারবার। মুহাম্মদ হচ্ছে কুরআনের ৪৭ নাম্বার সূরার নাম। হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর পুরো নাম আবু আল কাসিম মুহাম্মদ ইবনে আব্দুল্লাহ ইবনে আব্দুল মুত্তালিব ইবনে হাসিম। এই নামটি শুরু হয় কুনিয়া থেকে।

হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর বংশ তালিকা| হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর বংশধর

আর্টিকেল টির উপরে মহানবি সাঃ এর সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। সম্পূর্ণ পোস্টটি ভালোভাবে পড়লে আশা করি হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর স্ত্রী কন্যা পুত্র সহ তার পুরো নাম সম্পর্কে জানতে পারবেন। এখন আমরা হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর বংশ তালিকা এবং হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর বংশধর সম্পর্কে আলোচনা করব। রাসূল সাঃ এর নাম হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এবং উপনাম হচ্ছে আবুল কাশেম। তার পিতার নাম আব্দুল্লাহ বিন আব্দুল মুত্তালিব।

তিনি হলেন তার বাবার ১০ সন্তানের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ সন্তান। তার মায়ের নাম আমেনা বিনতে ওহহাব। হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর দাদার নাম আব্দুল মুত্তালিব বিন হাশেম এবং দাদীর নাম ফাতেমা বিনতে আমর। তার নানার নাম ওহহাব বিন আবদে মানাফ এবং নানীর নাম বোররা বিনতে ওমজা। মুহাম্মদ সাঃ বিন আব্দুল্লাহ বিন আব্দুল মুত্তালিব বিন ফেহের বিন গালেব বিন লুয়াই বিন কাআব বিন মোররা বিন কিলাব বিন কুসাই বিন আবদে মানাফ (তার উপাধি কোরাইশ ছিল।

আরো পড়ুনঃ মহান শিক্ষা দিবসে কতজন শহীদ হন

কোরাইশ বংশের প্রচলন এখান থেকেই শুরু) বিন আদনান বিন মাআদ বিন নেজার বিন মুজার বিন ইলিয়াস বিন মোদরাকা বিন খোজাইম বিন কানানা বিন নজর বিন মালেক। (সব ঐতিহাসিক এর ঐক্য আছে এ পর্যন্ত। এই বংশ লতিকা হযরত ইব্রাহিম ও ইসমাইল আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে পৌঁছেছে হযরত আদম আঃ পর্যন্ত)। হযরত মুহাম্মদ সাঃ জন্মগ্রহণ করেছেন মক্কায়।

শেষ কথাঃ রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন

রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর পুরো নাম হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর বংশ তালিকা এবং বংশধর ইত্যাদি সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের পুরো পোষ্টটি ভালোভাবে পড়ুন, আশা করি সবকিছু ভালোভাবে বুঝতে পারবেন। রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন সম্পর্কে সবার আগে জানতে হলে আমাদের সাথেই থাকুন।

আজ আর নয়, রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন সম্পর্কে আপনার কোন কিছু জানার থাকলে আমাদের কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন। আশা করি আমরা আপনার উত্তরটি দিয়ে দেবো। তাহলে আমাদের আজকের এই রাসূল সাঃ এর কতজন সন্তান ছিলেন সম্পর্কে পোস্টটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে, তাহলে আপনার ফেসবুক ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইলে আমাদের পোস্টটি শেয়ার করতে পারেন। ধন্যবাদ। ২৩৭৬৬

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url